Categories
রাজ্য

বিহারে বুথ ফেরত সমীক্ষা এগিয়ে মহাজোট, তাহলে কি বিদায় নীতিশ!

বিহারে NDA সরকারের পতন আসন্ন, তারুন্যের পাশে বিহার! কানহাইয়া আর তেজস্বীদের সভায় বিপুল ভিড় যা ইঙ্গিত দিচ্ছিল সেই ইঙ্গিত এবার বুথ ফেরত সমীক্ষায়।

বুথ ফেরত সমীক্ষার ইঙ্গিত দেখে বিহার নিয়ে ব্যাপক অস্বস্তিতে পড়েছেন মোদী-নিতিশ-শাহরা। লোকসভা ভোটে জোট সমঝোতা না হওয়ায় পূর্ণ ফায়দা তুলেছিল বিজেপি তথা এনডিএ। তাই অতীত থেকে ‘শিক্ষা’ নিয়ে বিহারের বিধানসভা ভোটে মহাজোট গড়েছে আরজেডি, কংগ্রেস ও বামেরা।
১৯৯৫ সালে বামেদের সমর্থনেই মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন লালুপ্রসাদ যাদব। লালু সরে দাঁড়ানোর পরে সেই সরকারেরই মুখ্যমন্ত্রী হন রাবড়ি দেবী। বিহারে বুথফেরত সমীক্ষার ইঙ্গিত সেই ১৯৯৫ সালের পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে এবার। প্রায় সবকটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম তাঁদের সমীক্ষায় এগিয়ে রেখেছে এনডিএ বিরোধী মহাজোট কে।


টাইমস নাও এবং সি ভোটারঃ এই সংস্থার এক্সিট পোল অর্থাৎ বুথ ফেরত সমীক্ষা বলছে বাম-কং-আরজেডির মহা জোট পেতে পারে ১২০ টি আসন। যেখানে ম্যাজিক ফিগার ১২২। অন্যদিকে বিজেপি-জেডিইউ পেতে পারে ১১৬ টি আসন। উল্লেখ্য বিহার বিধানসভার মোট আসন সংখ্যা ২৪৩।

এবিপি নিউজ – সি ভোটারঃ এই সংবাদমাধ্যমের সমীক্ষা অনুযায়ী মহাজোট এগিয়ে থাকলেও খুব একটা পিছিয়ে নেই এনডিএ জোট। সমীক্ষার ফল বলছে বিহারের ২৪৩ টি আসনের মধ্যে বাম-কং-আরজেডির মহা জোট পেতে পারে ১০৮ – ১৩১ টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি-জেডিইউ পেতে পারে ১০৪-১২৮ টি আসন।

রিপাবলিক টিভি এবং জন কি বাতঃ সমীক্ষার ফল বলছে এনডিএ পেতে পারে মাত্র ৯১ টি আসন। অন্যদিকে বাম কংগ্রেস এবং আরজেডি-র জোট পেতে পারে ১১৮ থেকে ১৩৮ টি আসন।

আগামী বছর বাংলায় বিধানসভা ভোট,তার আগে বিহার নির্বাচনের ফলাফল অনেকটাই প্রভাবিত করবে দেশের রাজনীতি। বিহার বাঁচাতে দেশের প্রায় সব হেভিওয়েট এনডিএ নেতারা ব্যাস্ত ছিলেন প্রচারে। জেপি নাড্ডা, নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ পালা করে চষে ফেলছেন বিহার। সেক্ষেত্রে বিহারে যদি ফল অন্যরকম হয় সেক্ষেত্রে কিন্তু অবশ্যই চিন্তার বিষয় বিজেপির কাছে।