Categories
রাজ্য

দাঁতের ক্ষ’য় রোধে যেসব বিষয় মেনে চলা দরকার

#নিয়মিত ব্রাশ করা. যে কোনো খাবার খাওয়ার পরেই মুখ জল দিয়ে ভালো করে ধোয়া উচিত। মিষ্টিজাতীয় বিভিন্ন খাবার, চকলেট, প্রভৃতি খাওয়ার পরে জল দিয়ে কুলকুচি ক’রতে হবে। তা না হলে দাঁতের মধ্যে লে’গে থাকা খাবারের মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়ার আ’ক্রমণ বেড়ে যায়।

#দাঁতের সুর’ক্ষায় নিয়মিত দন্ত বি’শেষজ্ঞের প’রামর্শ নেয়া উচিত. প্রয়োজনে চিকি’ৎসকের প’রামর্শ মতো দাঁতের যত্ন নিতে হবে। অনেক সময় ব্রাশ করার পরেও দাঁতের ফাঁকে খাবার আ’টকে থাকে।

#পুষ্টিকর খাবার খাওয়া. খাবারের তালিকায় বিভিন্ন ধ’রনের খাবার থাকে। তবে যেগুলো দাঁতের সুর’ক্ষার জন্য ভালো সেগুলো পাতে রাখু’ন। যেসব ফল এবং সবজিতে ফাইবার রয়েছে সেই খাবারগুলো খাবারের তালিকায় বেশি রাখতে হবে। এছাড়াও ডিম, দুধ, বাদাম প্রভৃতি খাদ্য দ্রব্য দাঁতের সুর’ক্ষায় এবং এনামেল তৈরিতে সাহায্য করে।

#ঠাণ্ডা তরল খাবার সময় স্ট্র ব্যবহার. যে কোনো ধ’রনের ঠাণ্ডা তরল খাবার সময়ে স্ট্র ব্যবহার করা উচিত। বাজারে যে পানীয় পাওয়া যায় তা খেতে স্ট্র ব্যবহার করলে দাঁতের ক্ষয় অনেকটাই রো’ধ করা সম্ভব। এছাড়াও ঠাণ্ডা যে কোনো পানীয় খেতে স্ট্র ব্যবহার ক’রতে হবে। এতে ঠাণ্ডা খাবার সময়ে তা সরাসরি দাঁতের সংস্প’র্শে আসে না তাই এই সুর’ক্ষা পাওয়া যায়।

#ওষুধ খাওয়ার পরে ব্রাশ করা এই ছোট্ট বিষয়টি আম’রা অনেক সময়েই ভুলে যাই। যে সমস্ত তরল ওষুধ বা সিরাপ রো’গ নিরাময়ের জন্য আম’রা খাই। এতে চিনির উপাদান বেশি থাকে যা দাঁতের ক্ষয়সহ বিভিন্ন স’মস্যার সৃষ্টি ক’রতে পারে। তাই নিজে এবং শি’শুদের এ ধ’রনের ওষুধ খাওয়ানোর পর অবশ্যই ব্রাশ করুন।