Categories
দেশ

রিয়া চক্রবর্তীর জেল জীবন

রিয়া চক্রবর্তীর কে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেল হেফাজতে থাকার নির্দেশ দেয় আদালত। জেলে সেলিব্রিটি খেতাবের জন্য বিশেষ কোনো জায়গা মেলেনি তার। জেলের ভিতর কড়া নজরদারিতে রয়েছেন তিনি। তিনটে শিফটে দু’জন করে রক্ষী সর্বক্ষণ রয়েছেন তাঁর পাহারায়। নিরাপত্তার খাতিরে একাই একটি সেলে রাখা হয়েছে রিয়াকে।

জানা যায় ব্যবহার করার পাখা এমনকি শোয়া বসার বিছানা টুকুও পাননি তিনি।

একাই একটি সেলে তাঁকে রাখা হয়েছে। জানা গিয়েছে, সেই সেলে কোনও ফ্যান এবং বিছানা নেই। তাঁর পাশের সেলেই রয়েছেন শিনা বোরা হত্যাকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়। নিরাপত্তার কারণেই রিয়াকে সিঙ্গল সেলে রাখা হয়েছে। কারাগারে অন্য বন্দিদের হাতে যাতে কোনও ভাবেই আক্রমণ বা হেনস্থা না হতে হয় রিয়াকে সেদিকে বিশেষ নজর রাখা হয়েছে। তিন শিফটে দুই কনস্টেবল অবিরত পাহারা দিচ্ছেন সেই সেলের বাইরে।

জেল সূত্রে খবর, রিয়াকে শোওয়ার জন্য ম্যাট অর্থাৎ পাটি দেওয়া হয়েছে। তবে বিছানা বা বালিশের কোনও ব্যবস্থা নেই। কোনও সিলিং ফ্যান বা টেবিল ফ্যানেরও ব্যবস্থা নেই সেই সেলে। আদালতের নির্দেশে এগুলি সেলে পেতে পারবেন রিয়া। দু’একটি পোশাক, টুথ ব্রাশ-পেস্ট এবং কয়েকটি জরুরি সামগ্রী ছাড়া রিয়ার সঙ্গে কিছুই নেই, দাবি করা হয়েছে জেল সূত্রে৷ করোনাভাইরাসের কারণে প্রত্যেক বন্দিকেই দুধ ও হলুদ দেওয়া হচ্ছে ইমিউনিটি বাড়ানোর জন্য। মুম্বইয়ের এই মহিলা সংশোধনাগারে কয়েক মাসে বেশ কয়েকটি করোনা রোগীর সন্ধানও মিলেছে।