Categories
দেশ

আগামী বছরই উৎক্ষেপণ হতে চলেছে ভারতের বহু প্রতীক্ষিত চন্দ্রযান ৩ সেই লক্ষেই প্রস্তুতি তুঙ্গে।

ইসরোর চন্দ্রযান-২ এর একটি অংশ ব্যর্থ হয়েছিল। যা ল্যন্ডার ভিক্রম ও রোভার প্রজ্ঞান নামে আমরা জানি। তবে সেই আংশিক ব্যর্থতাকে কাটিয়ে উঠেছে ইসরো। এবার নিজেদেরকে নতুন ভাবে তৈরি করতে লাইভ ল্যন্ডিং ট্রায়াল চালাবে ইসরো। আর সেই লক্ষে চাঁদের পৃষ্ঠের মত একটি বড় গর্ত তৈরি করা হচ্ছে ব্যঙ্গালোর থেকে ২১৫কিমি দূরে। জায়গাটার নাম উল্লারথি কাভালু। ইসরোর এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘আমাদের চাল্লাখেরে ক্যাম্পাসে এই মুন ক্রেটার তৈরি হবে। ইতোমধ্যেই এই কাজের জন্য টেন্ডার ডাকা হয়েছে। সেপ্টেম্বরের গোড়াতেই কাজ শুরু হয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।’চাঁদের যে অংশে বিক্রম ল্যান্ডার নামার চেষ্টা করেছিল, সেখানেই ল্য়ান্ড করানো হবে চন্দ্রযান-৩কেও। এই মিশনের জন্য ২৫০ কোটি টাকার বাজেট ধরা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

মোট খরচ পরবে ২৪,২০,০০০টাকা। অন্য একটি সূত্রের খবর অনুযায়ী এই মুন ক্রেটারগুলির পরিধি হবে ১০ মিটার এবং গভীরতা হবে তিন মিটার। নতুন চন্দ্রযান ৩ এর ল্যন্ডারকে তার সেন্সারের মাধ্যমে অনেক উচু থেকে এই গর্তকে ল্যন্ডিং স্পট হিসাবে চিহ্নিত করতে হবে। এই কারনেই তৈরি হচ্ছে এই গর্ত।