Categories
রাজ্য

CPIM বহিষ্কৃত ঋতব্রত’ই এখন আলিপুরদুয়ারে তৃণমূলের ভরসা

একসময় তিনি ছিলেন CPM এর সম্পদ ,ছিলেন SFI এর সর্বভারতীয় সম্পাদক।অলিমুদ্দিনের অন্দরে আগামী প্রজন্মের তাত্বিক নেতা হিসেবে বেশ নামডাক ছিল।সেজন্য দল তাকে ছাত্র রাজনীতির আঙিনা থেকে তুলে এনে সটান রাজ্যসভার সাংসদ করে দলের রাজ্য ও জাতীয় রাজনীতির আগামীর দিনের মুখ হিসেবে দেখতে শুরু করে।

দিল্লিতে SFI এর উদ্যোগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অমিত মিত্রকে ঘিরে বিক্ষোভ থেকে শুরু করে পরিবর্তন পরবর্তী বহু আন্দোলনের নায়ক ছিলেন ঋতব্রত।

পরবর্তীতে ব্যক্তিগত স্তরে তার বিরুদ্ধে মহিলাঘটিত অভিযোগ ওঠে ,তার প্রাক্তন দল CPM তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি বসায়।পরবর্তীতে দল থেকে বহিষ্কৃত হন এবং সেই সময় থেকেই ধীরে ধীরে সম্পূর্ণ বিপরীত মেরুতে গিয়ে তৃণমূলের সঙ্গে সখ্যতা তৈরি হয় এই যুব নেতার।যোগ দেন তৃণমূলে।

কয়েকদিন আগেই তৃণমূলের নবগঠিত রাজ্য কমিটিতে সম্পাদকের দায়িত্ব পান তিনি সঙ্গে চা বলয় আলিপুরদুয়ারের দায়িত্ব।গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরে কার্যত শুন্য হাতে থাকতে হয় তৃণমূলকে।এহেন অবস্থায় সামনের একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল আলিপুরদুয়ারের সংগঠনকে চাঙ্গা করতে ভরসা রাখছে তার উপর।

আর দায়িত্ব নিয়েই কাজে নেমে পড়লেন ঋতব্রত। আজ আলিপুরদুয়ার জেলায় ফালাকাটা বিধানসভার অন্তর্গত ভুতনিরঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ে,গুয়াবার নগর গ্রাম পঞ্চায়েতের ২৫টি বুথকে নিয়ে ৩ টি পর্যায়ে মিটিং করলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ।

রীতিমত বুথ ধরে ধরে সংগঠন গোছানোর কাজে নেমে পড়েছেন তিনি।গত নির্বাচনে বুথ প্রতি কত লিড বা কত ভোটে পিছিয়ে সবই হিসেব নিচ্ছেন তিনি।নেতা হিসেবে তিনি যে বেশ যোগ্য তা বুঝিয়ে দিয়েছেন প্রথম বৈঠকেই।